কপ-২৬ প্রেসিডেন্টের সফরে যে বিষয়গুলো তুলে ধরবে ঢাকা

Nazrul Islam

০২ জুন ২০২১, ০৭:৩৪ এএম


কপ-২৬ প্রেসিডেন্টের সফরে যে বিষয়গুলো তুলে ধরবে ঢাকা

অলোক শর্মা

দুই দিনের সফরে আজ (বুধবার) ঢাকা আসছেন কপ-২৬ প্রেসিডেন্ট অলোক শর্মা। চলতি বছরের নভেম্বরে স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে জাতিসংঘ আয়োজিত জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত সম্মেলনকে (কপ–২৬) সামনে রেখে অলোক শর্মার এ সফরকে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে ঢাকা।

ব্রিটিশ এই আইন প্রণেতার সফরে জলবায়ু ইস্যু বিশেষ করে ৪৮টি দেশের হয়ে ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) প্রধান হিসেবে বাংলাদেশ বিভিন্ন চাওয়া-পাওয়ার কথা তুলে ধরবে। একইসঙ্গে জলবায়ু ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হিসেবে আরও বেশি অর্থায়ন ও প্রযুক্তিগত সুবিধাসহ রোহিঙ্গা ইস্যুটি তুলবে ঢাকা।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জলবায়ু বিষয়ক বিশেষ দূত জন কেরির সফরের প্রায় দুই মাসের মাথায় কপ-২৬ প্রেসিডেন্টের ঢাকা সফর। এর মধ্য দিয়ে জলবায়ু ইস্যুতে ঢাকা ও ব্রিটেনের একসঙ্গে কাজ করার পথ আরও উন্মোচিত হবে। তাছাড়া কপ-২৬ সম্মেলনের আগে এটি ঢাকার জন্য আগাম প্রস্তুতিও বটে। সম্মেলনে বাংলাদেশ কোন কোন বিষয়গুলো তুলে ধরবে সেটারও একটা সুযোগ এটি।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ঢাকা পোস্টকে বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে আমাদের অবস্থান তুলে ধরব। সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে, ৪৮ সদস্য বিশিষ্ট সিভিএফ-এর নেতৃত্ব দিচ্ছি আমরা। সিভিএফ প্রধান হিসেবে জলবায়ু ইস্যুতে ক্ষতিগ্রস্ত সদস্যগুলোর কথা তুলে ধরব। ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হিসেবে আমাদের প্রাপ্য অর্থায়নের কথা ও প্রযুক্তিগত সমর্থন চাইব।’

কূটনৈতিক সূত্র বলছে, চলতি বছরের নভেম্বরে স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে অনুষ্ঠেয় কপ-২৬ সম্মেলনে যোগ দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইতোমধ্যে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে। অলোক শর্মা তার সফরে কপ-২৬ প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানাবেন।

দুই দিনের সফরে বুধবার (২ জুন) সকাল পৌনে ৯টায় ঢাকায় পৌঁছানোর কথা রয়েছে অলোক শর্মার। প্রথম দিন ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। এরপর বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য জলবায়ু বিষয়ক রাউন্ড টেবিলে অংশ নেবেন অলোক শর্মা। সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গেও তিনি সাক্ষাৎ করবেন।

অলোক শর্মার সফর নিয়ে ঢাকার ব্রিটিশ হাইকমিশন বলছে, নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জাতিসংঘের জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলনের আগে জলবায়ু মোকাবিলায় যুক্তরাজ্যের সহায়তা আরও সুদৃঢ় করতে অলোক শর্মা এই সফরে আসছেন।

কপ-২৬ প্রেসিডেন্টের সফর নিয়ে বৃহস্পতিবার (২৮ মে) যুক্তরাজ্যের ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিস জানিয়েছে, অলোক শর্মা শিগগিরই ভিয়েতনাম ও ইন্দোনেশিয়া সফর শেষে বাংলাদেশে আসবেন।

মূলত কপ-২৬ সম্মেলনের আগে জলবায়ু ইস্যুতে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া ও দক্ষিণ এশিয়ার সমর্থন অর্জনে অলোক শর্মার এ সফর। ঢাকা সফরে তিনি বাংলাদেশ সরকার, নাগরিক সমাজ ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুতে বৈঠক করবেন। বিশেষ করে বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি ১.৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে সীমাবদ্ধ রাখার বিষয়টিকে গুরুত্ব সহকারে তুলে ধরবেন তিনি।

যুক্তরাজ্যের ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিস জানায়, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া ও বাংলাদেশ সফরের আগে কপ-২৬ প্রেসিডেন্ট বলেছেন যে জলবায়ু সংকট মোকাবিলা অবশ্যই বিশ্বব্যাপী প্রচেষ্টার একটি হতে হবে। এটাকে উপেক্ষা করার কোনো উপায় নেই। আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ গড়তে বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি ১.৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে। ভিয়েতনাম, বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়া সফরে এই অগ্রাধিকারগুলো নিয়ে আলোচনার প্রত্যাশা করছি, যারা কপ-২৬ এর গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার হবে।

এদিকে ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার এক টুইট বার্তায় বলেছেন, যুক্তরাজ্য ও বাংলাদেশের মধ্যে সহযোগিতার ক্ষেত্রে এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ সফর। আমরা একসঙ্গে জলবায়ু বিষয়ক ক্ষতি মোকাবিলায় কাজ করতে চাই।

এনআই/এমএইচএস/ওএফ

টাইমলাইন

Link copied