টিকা আনার গতিতে সন্তুষ্ট নয় সংসদীয় কমিটি

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

১১ জুলাই ২০২১, ০৭:৩৬ পিএম


টিকা আনার গতিতে সন্তুষ্ট নয় সংসদীয় কমিটি

করোনাভাইরাসের টিকা বিদেশ থেকে আনার গতিতে সন্তুষ্ট নয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

রোববার (১১ জুলাই) জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সংসদীয় কমিটির বৈঠক শেষে কমিটি সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খান এ কথা জানান।

তিনি বলেন, এখনকার গতি নিয়ে সন্তুষ্টির কিছু নেই। টিকা আনার অগ্রগতি নিয়ে আমরা আগেই অসন্তোষ প্রকাশ করেছি। আমরা জেনেছি, প্রতি মাসে গড়ে ৫০ লাখের মত আসতে পারে। ওই হিসেবে ১২/১৩ কোটি মানুষের জন্য ২৬ কোটি ডোজ লাগবে। তাহলে দেশের বেশিরভাগ মানুষকে টিকার আওতায় আনতে ২০২৪ সাল লেগে যাবে।

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে কবে নাগাদ টিকা আসবে এ সংক্রান্ত বিষয়ে ফারুক খান বলেন, ভারতের সেরামের সঙ্গে আমাদের যে চুক্তি হয়েছে সেই চুক্তির আওতায় টিকা আগামী সেপ্টেম্বর মাসে পাঠানো শুরু করবে। মে মাসে সংসদীয় কমিটির বৈঠকে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছিল। 

এ বিষয়ে রোববারের বৈঠকে আলোচনা হয়েছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, মন্ত্রণালয় আমাদের জানিয়েছে, ভারত দুঃখ প্রকাশ করেছে। সেজন্য কমিটি বলেছে, আইনি পথে আর যাব না।

সমুদ্র পথে মানবপাচার : যৌথ কমিটি চায় সংসদীয় কমিটি

বৈঠকে সমুদ্রপথে অবৈধভাবে বিদেশযাত্রা রোধে পররাষ্ট্র, স্বরাষ্ট্র ও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সমন্বয়ে যৌথ কমিটি করে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার সুপারিশ করা হয়।

এ বিষয়ে কমিটির সভাপতি বলেন, কিছু দিন পরপর খবর আসে অবৈধভাবে বিদেশ যেতে গিয়ে সাগরে বাংলাদেশিদের মৃত্যু। এটা আমাদের জন্য ইজ্জতের ব্যাপার। আমরা যে উন্নয়নশীল দেশের দিকে যাচ্ছি, সেদিক থেকে দেখলে এটা নেতিবাচক। যারা আটক হয়ে ফিরে আসছে তাদের রিমান্ডে নিয়ে কারা অবৈধভাবে পাঠাচ্ছে সে বিষয়ে খোঁজ নিতে বলেছি। এজন্য আমরা পররাষ্ট্র, স্বরাষ্ট্র ও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়কে যৌথ কমিটি করে পদক্ষেপ নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছি।

বৈঠকে দেশের বাইরে বাংলাদেশের দূতাবাসে দুর্নীতির নিয়ে আলোচনা হয় বলে জানিয়েছেন ফারুক খান। তিনি বলেন, লেবানন ও ইতালির মিলানে আমাদের দূতাবাসের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে আমরা জানতে চেয়েছিলাম। মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মিলানে যিনি দায়িত্বে ছিলেন তাকে অন্যত্র বদলি করা হয়েছে। এ ধরনের অভিযোগ বার বার যাতে শুনতে না হয় সেই বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলেছি।

ফারুক খানের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, নুরুল ইসলাম নাহিদ, গোলাম ফারুক খন্দকার প্রিন্স, মো. আব্দুল মজিদ খান, মো. হাবিবে মিল্লাত ও নিজাম উদ্দিন জলিল (জন) অংশ নেন।

এইউএ/ওএফ

Link copied