র‍্যাবের নকল পণ্যবিরোধী অভিযান, কোটি টাকা জরিমানা

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩৮ পিএম


সারাদেশে অবৈধ ও নকল পণ্য উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রয় রোধে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করেছে পুলিশের এলিট ফোর্স র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। অভিযানকালে এসব অবৈধ কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ১৩৯ জন ব্যবসায়ীকে প্রায় কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ধ্বংস করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ নকল ও অবৈধ পণ্য।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত র‍্যাবের ১৫টি ব্যাটালিয়ন একযোগে এসব অভিযান পরিচালনা করে।

র‍্যাব সদর দফতরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান জানান, সম্প্রতি কিছু মুনাফালোভী অসাধু ব্যবসায়ী খাদ্য, প্রসাধনী, ওষুধ, মেডিকেল সামগ্রীসহ বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী নকল করে মানহীন পণ্য উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রয় করছে। ক্ষতিকর কেমিক্যাল দিয়ে তৈরি হচ্ছে সাবান, শ্যাম্পু, বডি লোশনসহ নানা রকম নকল দেশি ও বিদেশি প্রসাধনী। যেগুলো ব্যবহারে বাড়ছে ক্যান্সারের ঝুঁকি।

dhaka post

নকল ও ভেজাল ওষুধ তৈরি ও বিক্রয়ের সঙ্গে জড়িত রয়েছে বেশকিছু চক্র। এসব নকল ও ভেজাল ওষুধ গ্রহণের ফলে অনেকেই মৃত্যুঝুঁকিসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যগত ঝুঁকিতে রয়েছে। নকল, ভেজাল ও অবৈধ মেডিকেল সামগ্রী, খাদ্যদ্রব্য, ক্যাবল, মবিলসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী উৎপাদন ও বিক্রির সঙ্গে জড়িতরা অতিরিক্ত মুনাফার জন্য সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করছে।

এসব অসাধু ব্যবসায়ীদের কার্যক্রম নিয়ে গণমাধ্যমেও রয়েছে বিভিন্ন প্রতিবেদন। অনেক ভুক্তভোগী বিভিন্ন সময়ে র‍্যাবের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

পাশাপাশি র‍্যাব অনলাইন মিডিয়া সেল এবং ফেসবুক পেইজে অনেকেই এ সংক্রান্ত নেতিবাচক মন্তব্যসহ অভিযোগ করেছেন। গণমাধ্যমের প্রতিবেদন ও সাধারণ মানুষের উদ্বেগের পরিপ্রেক্ষিতে র‍্যাব দেশব্যাপী এসব অসাধু মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে।

dhaka post

এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) খাদ্য, প্রসাধনী পণ্য, ওষুধ, মেডিকেল সামগ্রীসহ নিত্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য সামগ্রী নকল করে উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রয়ের সঙ্গে জড়িত অসাধু মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে র‍্যাবের ১৫টি ব্যাটালিয়ন দেশব্যাপী একযোগে অভিযান পরিচালনা করে।

সরকারি সব দফতর ও কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমন্বয় করে এসব অভিযান পরিচালনা করা হয়। দেশব্যাপী পরিচালিত ৫৪টি ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৩৯ জন অসাধু ব্যবসায়ীকে ৯৮ লাখ ৮৫ হাজার তিনশ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। এরমধ্যে এক অসাধু ব্যবসায়ীকে জরিমানাসহ কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

দেশব্যাপী পরিচালিত অভিযানে ধ্বংস করা হয় বিপুল পরিমাণ প্রসাধনী, ওষুধ, মেডিকেল সামগ্রীসহ অন্যান্য নকল অবৈধ পণ্য এবং নকল করতে ব্যবহৃত ক্ষতিকারক রাসায়নিক দ্রব্যাদি।

ইমরান খান জানান, দেশব্যাপী অবৈধ ও নকল পণ্য উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রয়ের সঙ্গে জড়িত অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে র‍্যাবের নজরদারি এবং অভিযান অব্যাহত থাকবে।

জেইউ/এমএইচএস

Link copied