তথ্যপ্রবাহের সুবর্ণ সময় চলছে : স্পিকার

Dhaka Post Desk

বিশেষ প্রতিনিধি

২৬ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৩ পিএম


জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, অনলাইন পোর্টালসহ নিত্যনতুন মাধ্যম সম্পর্কে আমাদের জানতে হচ্ছে। গণমাধ্যম থেকে তথ্য পাওয়ার পর আমরা সিদ্ধান্ত নিতে পারি। রাস্তার যানজট, আবহাওয়ার আগাম বার্তা থেকে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়ে পথ চলতে পারি। চলার পথে সিদ্ধান্ত গ্রহণে সাংবাদিকতা তাই গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছে।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিআরইউর সভাপতি মুরসালিন নোমানী।

অনুষ্ঠানে স্পিকার আরও বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে দায়িত্বশীল ও নৈতিকতা পূর্ণ সাংবাদিকতা এখন জরুরি। কারণ ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে নাশকতা ঘটানো হচ্ছে‌। তা প্রতিরোধ করার বিষয়টি আমাদের ভাবতে হবে। এজন্য প্রয়োজন উপযুক্ত সাংবাদিকতা।

তিনি আরও বলেন, ২০০৮ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন। তারই ফলশ্রুতিতে আমরা এ করোনাকালে ডিজিটাল বাংলাদেশের মাধ্যমে সবার সঙ্গে সংযুক্ত থেকেছি ভার্চুয়ালি। ২০০৮ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশের যে ঘোষণা দিয়েছিলেন তা এখন বাস্তবতা। এখন অবাধে সংবাদ প্রচার করা যাচ্ছে। চলমান ঘটনাকে তুলে ধরছেন সাংবাদিকরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারণে অনেক নতুন বিষয় চ্যালেঞ্জ হিসেবে আবির্ভূত হচ্ছে বলে আমি মনে করি‌। আমি মনে করি গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ গণমাধ্যম। গণমাধ্যম জনজীবনের অন্যতম অনুষঙ্গ। আমরা অসংখ্য খবরের মুখোমুখি হই প্রতিদিন। সংবাদের প্রবাহ বেগবান হয়েছে তথ্যপ্রযুক্তির কল্যাণে।

dhakapost
এবার প্রিন্ট ও অনলাইন ক্যাটাগরিতে ক্রীড়া বিষয়ে বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন ঢাকা পোস্টের জ্যেষ্ঠ ক্রীড়া প্রতিবেদক আরাফাত জোবায়ের।

ডিআরইউ সদস্যদের পেশাগত কাজের স্বীকৃতি হিসেবে প্রতি বছর বিভিন্ন বিষয়ে শ্রেষ্ঠ রিপোর্টিংয়ের জন্য অ্যাওয়ার্ড দিয়ে থাকে। এবার প্রিন্ট ও অনলাইন ক্যাটাগরিতে ক্রীড়া বিষয়ে বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন ঢাকা পোস্টের জ্যেষ্ঠ ক্রীড়া প্রতিবেদক আরাফাত জোবায়ের। প্রিন্ট ও অনলাইন ক্যাটাগরিতে মুক্তিযুদ্ধ, ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি; শিক্ষা; অপরাধ ও আইনশৃঙ্খলা; তথ্য, যোগাযোগ ও প্রযুক্তি; রাজনীতি, প্রশাসন, বিচার, সংসদ ও নির্বাচন কমিশন; ক্রীড়া; স্বাস্থ্য; সেবা খাত; কৃষি ও পরিবেশ; অর্থনীতি; আর্থিক খাত (ব্যাংক, বিমা ও পুঁজিবাজার); নারী, শিশু ও মানবাধিকার এবং বৈদেশিক সম্পর্ক (কূটনীতি ও জনশক্তি) বিষয়ে অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া টেলিভিশন ও রেডিও ক্যাটাগরিতে অর্থনীতি; আর্থিক খাত (ব্যাংক, বিমা ও পুঁজিবাজার); অপরাধ ও আইনশৃঙ্খলা; তথ্য, যোগাযোগ ও প্রযুক্তি; নারী, শিশু ও মানবাধিকার; ক্রীড়া; স্বাস্থ্য; সেবা খাত এবং সুশাসন ও দুর্নীতি (অনুসন্ধানী) বিষয়ে অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) নগদ-ডিআরইউ বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড-২০২১ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, গণমাধ্যমের দায়িত্বশীল ভূমিকা সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে পারে। নৈতিক ও দায়িত্বশীল সাংবাদিকতার মধ্য দিয়ে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় গণমাধ্যম উজ্জ্বল ভূমিকা রাখতে পারে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের ধারণকৃত বক্তব্য সম্প্রচার করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ডাক বিভাগের মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক ও প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী পরিচালক নিয়াজ মোর্শেদ এলিট, ডিআরইউয়ের সাবেক সভাপতি ও জুরি বোর্ডের চেয়ারম্যান শাহজাহান সরদার, ডিআরইউ এর সাংগঠনিক সম্পাদক মাঈনুল হাসান সোহেল বক্তব্য রাখেন। 

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি-ডিআরইউয়ের সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমান খান অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী জনস্বার্থে দায়িত্বশীল সাংবাদিকতায় উদ্যোগী হতে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নেতিবাচক, বানোয়াট সংবাদ ও প্রোপাগান্ডা সহজেই ছড়িয়ে পড়ছে। এ ক্ষেত্রে, গণমাধ্যম বস্তুনিষ্ঠ ও দায়িত্বশীল সাংবাদিকতার মধ্য দিয়ে জনগণকে সঠিক তথ্য দেওয়ার মাধ্যমে এ চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে পারে।

করোনা পরিস্থিতিতে সাহসিকতার সঙ্গে রিপোর্টিং করার জন্য তিনি গণমাধ্যম-কর্মীদের ধন্যবাদ জানান।

সবশেষে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার ১৩ জন সাংবাদিক এবং টেলিভিশন ও রেডিও সাংবাদিকতায় ৯ জনকে ‘নগদ-ডিআরইউ বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ প্রদান করেন।

পুরস্কারপ্রাপ্তদের তালিকা দেখতে ক্লিক করুন

পিএসডি/এসএসএইচ

Link copied