ইউরোপের সেরা পর্যটন সংস্থা ‘ট্যুরিজমো দে পর্তুগাল’

Dhaka Post Desk

ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী, পর্তুগাল

২৩ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫৯ এএম


ইউরোপের সেরা পর্যটন সংস্থা ‘ট্যুরিজমো দে পর্তুগাল’

পর্তুগালের পর্যটন সংস্থা ‘ট্যুরিজমো দে পর্তুগাল’ (পর্তুগাল সরকারের পর্যটন সংস্থা) ইউরোপের সেরা পর্যটন সংস্থা হিসেবে ওয়ার্ল্ড ট্রাভেল অ্যাওয়ার্ড ২০২১ নির্বাচিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) ওয়ার্ল্ড ট্রাভেল অ্যাওয়ার্ড পর্যটন খাতে ২০২১ সালে ইউরোপের সেরা হিসেবে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন। এ অ্যাওয়ার্ডটি ট্যুরিজমের অস্কার হিসেবে পরিচিত। পর্যটন খাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

পর্যটন নগরী আলগার্ভ আবারও ইউরোপের প্রধান সমুদ্র সৈকত গন্তব্য এবং পর্তুগালের সাগরকন্যা আছোরেস দ্বীপ প্রধান রোমাঞ্চকর ভ্রমণ গন্তব্য হিসেবে স্বীকৃত পেয়েছে। পর্তুগালের ফুটবল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর শহর মাদেইরা দ্বীপ প্রধান আকর্ষণীয় দ্বীপ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে।

পর্তুগালের পতাকাবাহী বিমান টাপ এয়ার পর্তুগাল ইউরোপ থেকে দক্ষিণ আমেরিকা এবং আফ্রিকার সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের জন্য সেরা বিমান সংস্থা হিসেবে দুটি পুরস্কার পেয়েছে।

দেশটির রাজধানী লিসবন ইউরোপের প্রধান প্রমোদ তরী (ক্রুজ) বন্দর। তাছাড়া ইউরোপের সেরা ট্যুরিজম ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট পাছা দিসু পাইবা, যা অরোকা ঝুলন্ত ব্রিজ হিসেবে পরিচিত। এছাড়া ডিজাইন হোটেল, লাইফ স্টাইল হোটেল, রিসোর্ট, ইকোপার্কসহ মোট ২৩টি ক্যাটাগরিতে চলতি বছর পর্তুগাল অস্কার খ্যাত এ পুরস্কার অর্জন করেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পর্তুগালে দ্বিতীয় প্রজন্মের অন্যতম প্রবাসী বাংলাদেশি ইমরান শোয়েব ঢাকা পোস্টকে জানান, মূলত পর্যটন শিল্পের বিপ্লব শুরু হয় ২০১১ সাল থেকে। এরপর প্রতি বছরই পর্তুগাল সরকারের বিভিন্ন কর্মপরিকল্পনার কারণে দেশটির পর্যটন খাত ইউরোপ তথা বিশ্বের অন্যতম সেরা পর্যটন শিল্প হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ পর্যটন শিল্পকে কাজে লাগিয়ে প্রবাসী বাংলাদেশিরাও ভাগ্য উন্নয়ন করতে পেরেছেন। পর্যটন খাতের এ অর্জন ভবিষ্যৎ সময়ে পর্তুগালের নাগরিক তথা প্রবাসী বাংলাদেশিদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য সহায়ক হবে।

ওয়ার্ল্ড ট্রাভেল অ্যাওয়ার্ড ১৯৯৩ সাল থেকে বিশ্বব্যাপী এ পুরস্কার প্রদান করে আসছে।

এসএসএইচ

Link copied