তারার মেলায় ফ্র্যাঞ্চাইজি হকির লোগো উন্মোচন 

Dhaka Post Desk

ক্রীড়া প্রতিবেদক

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:০১ পিএম


তারার মেলায় ফ্র্যাঞ্চাইজি হকির লোগো উন্মোচন 

দেশের প্রথম ফ্র্যাঞ্চাইজি হকি টুর্নামেন্ট 'হকি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির' লোগো উন্মোচন হয়েছে আজ। জমকালো অনুষ্ঠানে তারার মেলায় এই লোগো উন্মোচিত হয়। 

রাজধানীর একটি কনভেনশন সেন্টারে আজ বিকেলে অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হয়। সেখানে হকি অঙ্গনের চেনা মুখ তো বটেই, উপস্থিত ছিলেন ফিফা কাউন্সিল সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরণ, সাবেক টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, জাতীয় টি-টোয়েন্টি দলের সহ-অধিনায়ক নুরুল হাসান, দেশসেরা আরচ্যার রোমান সানা, অভিনেত্রী নাজিফা তুষিসহ আরও অনেকে। 

অনুষ্ঠানে ক্রিকেটার নুরুল হাসান সোহান নিজের হকির স্মৃতি রোমন্থন করেন। তিনি বলেন,  'হকি খেলা অনেক মজার। কিন্তু অনেক কঠিন খেলাটা। তবে এটা আমার কাছে বেশ ভালোই লাগে। হকিস্টিক হাতে নিলে আলাদা একটা পাওয়ার চলে আসে। কখনো হকি খেলিনি তবে যদি হকি খেলতাম তাহলে গোলকিপার হতাম।'

সোহানের দাবি, বিপিএল আয়োজনের পর দেশের ক্রিকেটের উন্নতি হয়েছে। হকির এই টুর্নামেন্টও উন্নতির পথ গড়ে দেবে বাংলাদেশ হকির জন্য। তার ভাষ্য, 'বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ফ্রাঞ্চাইজি হকি লিগ হচ্ছে। এখানে অনেক উদীয়মান খেলোয়াড় উঠে আসবে। আমাদের বিপিএল আয়োজনের পর ক্রিকেটে অনেক উন্নতি হয়েছে। এবার আশা করি হকি এই লিগের মাধ্যমে হকিরও অনেক উন্নতি হবে। আমি শুনেছি হকি র‍্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ ২৭ নম্বর আছে। নিয়মিত খেললে ভালো সুযোগ আছে বিশ্বকাপে খেলার। আশা করি বাংলাদেশ দ্রুতই হকিতে বিশ্বকাপে খেলবে।' 

তিনি আরও যোগ করেন, 'বাংলাদেশের মানুষ খেলাধুলার প্রতি অনেক আবেগি। আমরা যখন ভালো করি বা খারাপ করি তখন অনেক প্রভাব পড়ে। ইমোশনের সঙ্গে কাজ করে। শুধু ক্রিকেট বা ফুটবল নয় হকি বা অন্য যেসব খেলা আছে সেসব খেলায় যে উন্নতি করতে পারি সেটাই আমরা চাই।'
 

বাংলাদেশে একসময় ক্রিকেটের চেয়েও বেশি জনপ্রিয় খেলা ছিল হকি। খেলাটির সেই সব সোনালি দিন অবশ্য এখন দূর অতীতের গল্প। সেই খেলায় এমন বিনিয়োগকে দেশসেরা আরচ্যার রোমান সানা দেখছেন ইতিবাচক দৃষ্টিতে। বলছেন, 'আমি মনে করি প্রতিটি খেলায় তারকা ইমেজ বাড়বে। কিন্ত সঠিক পরিচর্যার অভাবে অনেক আর্থিক সমস্যা ফেস করি। আমার অভিজ্ঞতা থেকে যদি বলি অনেক দেশে খেলাধুলা করতে গিয়েছি। সবার সঙ্গে মিশেছি। ইউরোপের কথা বলি এমনকি ভারতের কথা বলি ওরা খেলায় অনেক বিনিয়োগ করেছে খেলাধুলায়। তারা প্রতিটি জায়গায় এমনভাবে গুরুত্ব দিয়েছে যে এবং সরকার একটা নিয়ম করে দিয়েছে যে স্পনসর কোম্পানিগুলো ক্রীড়া খাতে স্পনসর করে।'

'আমাদের স্পোর্টস এগিয়ে নিতে হলে প্রয়োজন বেশি বেশি টুর্নামেন্ট খেল। আন্তর্জাতিক বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং টুর্নামেন্ট । আমরা আগে ৬-৭ বছর আগে ৩-৪ টা টুর্নামেন্ট খেলতাম। তাও টুর্নামেন্ট খেলতে যেতে পারব কিনা দ্বিধায় থাকতাম। এশিয়া কাপে খেলতাম। বিশ্বকাপ পারতাম না। তির আমাদের সঙ্গে আসার পর তখন ২০১৮ সালে ১৫ বছর পর আর্চারি বিশ্বকাপে খেললাম। তখন ইন্টারন্যাশনাল খেলোয়াড়দের সঙ্গে মিশে তাদের কালচার সংস্কৃতি তারা নিজেদের কিভাবে প্রস্তুত করে । তখন একটা জিনিসি বুঝলাম তারা যদি পারে তাহলে আমরা কেন পারব না। তখন বুঝলাম শুধু পরিশ্রমটা দরকার। এখন হকি এই লিগে অনেক ম্যাচ খেলতে পারবে এটা যদি তারা ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারে তাহলে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে যাবে ও শক্ত প্রতিপক্ষ হিসেবে নিজেদের দাঁড় করাতে পারবে।'

এনইউ/এসএইচ

Link copied