ব্যবসায়ীকে হত্যার দায়ে চাচা-ভাতিজার যাবজ্জীবন

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া

১১ আগস্ট ২০২২, ০১:০৭ পিএম


ব্যবসায়ীকে হত্যার দায়ে চাচা-ভাতিজার যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ব্যবসায়ী রিয়াজুল ইসলাম হত্যা মামলায় চাচা-ভাতিজার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদেরকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। 

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) দুপুরে কুষ্টিয়া বিশেষ জজ (জেলা ও দায়রা জজ) আদালতের বিচারক মো. আশরাফুল ইসলাম এ রায় দেন। 

আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) অনুপ কুমার নন্দী ঢাকা পোস্টকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- সিফাত বিশ্বাস ও ওয়াসিম আলী। সিফাত বিশ্বাস কুমারখালী উপজেলার বাড়াদি গ্রামের মৃত আইনুদ্দিনের ছেলে ও ওয়াসিম আলী একই গ্রামের মৃত জয়েন বিশ্বাসের ছেলে। তারা সম্পর্কে চাচা-ভাতিজা। 

রায় ঘোষণার সময় আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর পরই তাদেরকে পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলার অপর ৯ আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালের ২৩ এপ্রিল বিকেল ৫টার দিকে কুমারখালী উপজেলার বাড়াদি গ্রামের মৃত আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে রিয়াজুর আসামিদের উচ্চশব্দে গান বাজাতে নিষেধ করেন। এতে আসামিরা ক্ষিপ্ত হয়ে রিয়াজুলকে কুপিয়ে হত্যা করেন। এ ঘটনায় পর দিন নিহতের ছেলে শহিদুল ইসলাম  কুমারখালী থানায় মামলা করেন।

মামলার তদন্ত শেষে তদন্তকারী কর্মকর্তা আসামিদের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালের ১০ সেপ্টেম্বর আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। এরপর আদালত এ মামলায় সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আজ রায় দেন। 

আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী বলেন, ব্যবসায়ী রিয়াজুল হত্যা মামলায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় দুইজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলার অপর ৯ আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

রাজু আহমেদ/আরএআর

Link copied