আসামি ধরতে গিয়ে হামলার শিকার ওসি, নারীসহ আটক ৩

Dhaka Post Desk

জেলা প্রতিনিধি, ঝালকাঠি

০৩ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৭ এএম


আসামি ধরতে গিয়ে হামলার শিকার ওসি, নারীসহ আটক ৩

ডাকাতি মামলায় সন্দেহভাজন আসামিকে আটক করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন ঝালকাঠির রাজাপুর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল হালিম তালুকদারসহ দুই পুলিশ সদস্য। 

শনিবার (২ অক্টোবর) দুপুরে কাঁঠালিয়া উপজেলার ছোট কৈখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রাজাপুর থানা পুলিশ দুই নারীসহ তিনজনকে আটক করেছে।

আটকরা হলেন : ছোট কৈখালী গ্রামের মৃত কাদের হাওলাদারের ছেলে আবুল কালাম হাওলাদার (৩০), তার ভাইয়ের স্ত্রী মাহফুজা বেগম ও জাহানারা বেগম।

আটক ব্যক্তি ও তাদের সহযোগীদের হামলায় আহত হয়েছেন রাজাপুর থানার ওসি ছাড়াও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মো. নূরুজ্জামান। তারা বর্তমানে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা যায়, ১৫ সেপ্টেম্বর রাজাপুরের গালুয়া ইউনিয়নের পুটিয়াখালী গ্রামে মো. ফরিদ খন্দকারের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় ডাকাতরা স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকার সঙ্গে বাড়িতে পোষা ময়না পাখিটিও নিয়ে যায়। এ ঘটনায় পর দিন ১৬ সেপ্টেম্বর রাজাপুর থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে মামলা করেন ভুক্তভোগী। সেই মামলার সূত্র ধরে তদন্তে নামে পুলিশ। তদন্তে বেরিয়ে আসে পার্শ্ববর্তী কাঁঠালিয়া উপজেলার আবুল কালামের নাম। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে আজ দুপুরে সাদা পোশাকে আবুল কালামের বাড়িতে যান দুই ওসিসহ দুই পুলিশ সদস্য। 

এ সময় বাড়ির ও আশপাশের অর্ধশতাধিক লোক পুলিশের ওপর হামলা চালায়। পরে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে রাজাপুর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে এবং অভিযুক্ত আবুল কালামসহ তিনজনকে আটক করে।

ওসি (তদন্ত) আব্দুল হালিম তালুকদার ঢাকা পোস্টকে বলেন, আমার ওপর লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা করা হয়েছে। এতে আমার দুই হাঁটু, চোখ এবং চোয়াল আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে।

রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আহত পুলিশ কর্মকর্তাদের চিকিৎসা চলছে। এ ঘটনায় পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ইসমাঈল হোসাঈন/এসকেডি

Link copied