কৃষি, স্বাস্থ্য ও পর্যটন খাতে স্পেনকে বিনিয়োগের আহ্বান

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৩৮ এএম


কৃষি, স্বাস্থ্য ও পর্যটন খাতে স্পেনকে বিনিয়োগের আহ্বান

বাংলাদেশের অবকাঠামো, রেলওয়ে, কৃষি, স্বাস্থ্য ও পর্যটন খাতে স্পেনের উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) সভাপতি রিজওয়ান রাহমান।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) ডিসিসিআই কার্যালয়ে বাংলাদেশে স্পেনের রাষ্ট্রদূত ফ্রান্সিসকো বেনিতেজ সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে ঢাকা চেম্বারের সভাপতি এ আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে ডিসিসিআই সভাপতি রিজওয়ান রাহমান বলেন, ২০১৯-২০ অর্থবছরে বাংলাদেশ ও স্পেনের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল ২.৩৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যেখানে বাংলাদেশ প্রায় ২.১৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্য রফতানি করেছে। যার বিপরীতে আমদানির পরিমাণ ১৭৭.৯৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ প্রধানত তৈরি পোশাক খাতের পণ্য স্পেনে রফতানি করে থাকে। এছাড়া বাংলাদেশে উৎপাদিত পাদুকা, কার্পেট, পাটজাত পণ্য, বাইসাইকেল, প্লাস্টিক ও ডেইরি পণ্য রফতানির প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে।

এসময় ঢাকা চেম্বারের সভাপতি বাংলাদেশের অবকাঠামো, রেলওয়ে, কৃষি যন্ত্রপাতি, কৃষি পণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ, স্বাস্থ্য সেবা, পর্যটন, অটোমোটিভ, তথ্যপ্রযুক্তি এবং এপিআই প্রভৃতি খাতে স্পেনের উদ্যোক্তাদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানান। 

স্পেনের রাষ্ট্রদূত ফ্রান্সিসকো বেনিতেজ বলেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশ উল্লেখজনক হারে অর্থনৈতিক অগ্রগতি অর্জন করেছে এবং করোনা মহামারিতেও বাংলাদেশের অর্থনৈতিক কার্যক্রম চলমান ছিল, যা অনুসরণীয় একটি বিষয়। দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যে তৈরি পোশাক খাতের আধিক্য থাকলেও স্বাস্থ্য সেবা, পর্যটন, কৃষি ও কৃষিজাত পণ্য, অবকাঠামো, রেলওয়ে এবং ভারী যন্ত্রপাতি প্রভৃতি খাতে দুদেশের বাণিজ্য আরও সম্প্রসারণের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে।

তিনি জানান, ইউরোপীয় অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে কৃষি পণ্য উৎপাদন ও এ বিষয়ক ব্যবসা-বাণিজ্যে স্পেন প্রথম অবস্থানে রয়েছে এবং বাংলাদেশের কৃষি খাতের আধুনিকায়ন ও উন্নত যন্ত্রপাতির ব্যবহার, কৃষি পণ্য বহুমুখীকরণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণে স্পেনের প্রযুক্তি ও অভিজ্ঞতা কাজে লাগতে পারে।

রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের ঐতিহাসিক প্রত্মতাত্বিক নিদর্শনগুলো সংরক্ষণ এবং এগুলো দেশি-বিদেশি পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় করে তোলার লক্ষ্যে স্পেনের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা কাজে লাগানোর প্রস্তাব করেন।

এসময় ডিসিসিআই ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি এন কে এ মবিন, সহ-সভাপতি মনোয়ার হোসেন এবং স্পেন দূতাবাসের বাণিজ্যিক অ্যাটাশে ফ্রান্সিসকো খাবিয়ের ইয়েপেস উপস্থিত ছিলেন।

আরএম/এসএসএইচ

Link copied