Dhaka Post

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১

বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ১৬তম সভা আজ

Dhaka Post Desk

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৮:১২

বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ১৬তম সভা আজ

বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ১৫তম সভার ফাইল ছবি/ ঢাকা পোস্ট

সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ১৬তম সভা আজ (২৩ ফেব্রুয়ারি) অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাছের জানিয়েছেন, আজ বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ১৬তম সভা নগর ভবনের বুড়িগঙ্গা হলে অনুষ্ঠিত হবে। সভা শেষে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কমিটির সভাপতি ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস সার্বিক বিষয় তুলে ধরবেন।

এর আগে গত ১৯ জানুয়ারি বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ১৫তম সভায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস জানিয়েছিলেন, সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানোর অংশ হিসেবে আগে ঘাটারচর থেকে মতিঝিল পর্যন্ত পাইলট রুট চালুর সিদ্ধান্ত ছিল। সে মোতাবেক কমিটি কার্যক্রম শুরু করার পর সার্বিক বাস্তবতায় দেখা যায় যে, ঘাটারচর থেকে শুধু মতিঝিল পযর্ন্ত রুট নির্ধারণ করা হলে এটি ফলপ্রসূ নাও হতে পারে। এ জন্য পাইলট রুটের পরিধি বাড়িয়ে ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত করা হচ্ছে। এই রুট চালুর ক্ষেত্রে যাত্রী ছাউনি এবং বাস-বেসহ আনুষঙ্গিক অবকাঠামো নির্মাণে কিছু জমির প্রয়োজন হবে। অবকাঠামোগুলোর কাজ যাতে শেষ করা যায়, এজন্য সভায় আলোচনা হবে।

তিনি আরও বলেন, এই রুটে চলাচলকারী বাসে যাত্রীদের জন্য ভাড়া নির্ধারণের দায়িত্ব বিআরটিসিকে দেওয়া হয়েছে। রাত ১২টার পর সড়কে যাতে বিআরটিসির বাস না থাকে গত সভায় এমন নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। এ বিষয়ে অনেকদূর অগ্রগতি হয়েছে। জায়গা সংকুলান না হওয়ায় কিছু বাস এখনেও সড়কেই থাকছে। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে বিআরটিসিকে সব বাস নিজস্ব ডিপো বা টার্মিনাল বা তাদের জায়গায় রাখার সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, বর্তমানে এই রুটে যাদের বাস চলছে, অন্যরা যারা এই রুটে বাস চালাতে চায় সবাইকে নিয়ে সমন্বয় করতে চায় কমিটি। এই বিষয়টি নিয়ে বাস মালিকেরা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ এবং বিশেষজ্ঞদের সাথে বসবেন। আয় এবং ব্যয়ের হিসেব যাতে ঠিকমতো হয় এ জন্য একটি নীতিমালা তৈরি হবে। নীতিমালার আলোকে পাইলট এই প্রকল্পে জয়েন্ট ভেঞ্চার এগ্রিমেন্ট (জেভিএ) হবে। এরপর এটাকে একটা পূর্ণাঙ্গ কোম্পানিরূপে চালু করব। যাতে করে সুষ্ঠুভাবে, শৃঙ্খলাবদ্ধ ব্যবস্থাপনা আসে।

বাস রুট ফ্র্যাঞ্চাইজি বাস্তবায়নের জন্য প্রাথমিকভাবে একশ কোটি টাকার বরাদ্দ নির্ধারণ করা হয়েছে। এই বরাদ্দ হতে বর্তমানে চলাচলকারী বাসগুলোর আধুনিকায়নের জন্য মালিকদের মতামতের ভিত্তিতে সহজ সুদে ঋণের মাধ্যমে এই টাকা দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক আলাপ হয়েছে কমিটির। দীর্ঘ মেয়াদে মালিকেরা যাতে এই ঋণ পায় সে ব্যাপারে দ্রুত ডিটিসিএ চিঠি লিখবে বলে কমিটি সূত্রে জানা গেছে।

এএসএস/এইচকে

Link copied