ঢাকার ৭১১ বাসে ই-টিকিটিং চালু হচ্ছে মঙ্গলবার

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০১:০৫ পিএম


ঢাকার ৭১১ বাসে ই-টিকিটিং চালু হচ্ছে মঙ্গলবার

ঢাকা মহানগরীতে চলাচল করা বাসগুলোর মধ্যে নতুন করে আরও ১৫টি পরিবহন কোম্পানির বাসে মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) থেকে ই-টিকিটিং চালু করতে যাচ্ছে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি। মোহাম্মদপুর, আজিমপুর ও গাবতলি অঞ্চলের ওই ১৫টি কোম্পানিতে বর্তমানে বাস রয়েছে ৭১১টি।

সোমবার (৯ জানুয়ারি) রাজধানীর ইস্কাটনে সমিতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন থেকে এ কথা জানান বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ।

খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, ঢাকা শহর ও শহরতলী রুটের বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়সহ বিভিন্ন অনিয়ম দূর করার জন্য আমরা পরীক্ষামূলকভাবে গত বছরের ২২ সেপ্টেম্বর মিরপুর ভিত্তিক ঢাকার ৮টি পরিবহন কোম্পানি এবং ১৩ নভেম্বর ২২টি পরিবহন কোম্পানিসহ মোট ৩০টি পরিবহন কোম্পানির মোট ১ হাজার ৬৪৩টি গাড়িতে ই-টিকেটিং পদ্ধতি চালু করেছি।

এতে ৩০টি কোম্পানির ৭০ থেকে ৭৫ শতাংশ গাড়িতে ই-টিকিটিং-এর পদ্ধতি কার্যকর করা হয়েছে। আর বাকি গাড়িগুলোতে তা কার্যকর করার লক্ষ্যে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির ৩টি ভিজিল্যান্স টিম প্রতিদিন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এছাড়া সমিতির নিয়োগ দেওয়া ৯ জন স্পেশাল চেকার প্রতিদিন রোডে মনিটরিং করছেন। যে সব গাড়ি এখনো নিয়মের মধ্যে আসেনি তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থাও নেওয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, যাত্রীদের অভিযোগ ই-টিকিটিং-এর টিকিটিং দূরত্ব অনুযায়ী নির্দিষ্ট কিলোমিটারের উল্লেখ নেই। কিলোমিটার উল্লেখ করে ভাড়ার চার্ট তৈরি করার জন্য আমরা ইতোমধ্যে বিআরটিএ-কে অনুরোধ জানিয়েছি।। ভাড়ার চার্ট তৈরি করা হলে ডিভাইসে কিলোমিটার উল্লেখ করে দেওয়া হবে।

আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে মোহাম্মদপুর, আজিমপুর ও গাবতলির ১৫টি কোম্পানিতে ই-টিকিটিং ব্যবস্থা চালু করা হচ্ছে। ১৫টি কোম্পানির মোট গাড়ির সংখ্যা ৭১১টি। এর মধ্যে ১৫টি পরিবহন কোম্পানি হচ্ছে— মেসার্স ভূঁইয়া এন্টারপ্রাইজ, স্বাধীন লাইন পরিবহন, দেওয়ান এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড, মালঞ্চ পরিবহন লিমিটেড, তরঙ্গ প্লাস ট্রান্সপোর্ট লিমিটেড, আলিফ এন্টারপ্রাইজ (১), আলিফ এন্টারপ্রাইজ (২), অভিনন্দন ট্রান্সপোর্ট লিমিটেড, বিকাশ পরিবহন লিমিটেড, গাবতলি এক্সপ্রেস লিমিটেড, মেঘলা ট্রান্সপোর্ট কোং লিমিটেড, ভিআইপি অটো মোবাইলস লিমিটেড, রমজান আলী এন্টারপ্রাইজ, মিডলাইন পরিবহন লিমিটেড এবং স্বপ্ন পরিবহন লিমিটেড।

এমএইচএন/এফকে

Link copied