মামুনুলকে কেন এই লজ্জাজনক পরিস্থিতিতে পড়তে হলো?

Dhaka Post Desk

আশরাফুল আলম খোকন 

০৬ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৫৫

মামুনুলকে কেন এই লজ্জাজনক পরিস্থিতিতে পড়তে হলো?

রিসোর্টে যাওয়া কোনো অপরাধ নয়। বউ নিয়ে যাওয়াটা অপরাধের মধ্যেই পড়ে না। তবু কেন হেফাজতের মামুনুলকে এই লজ্জাজনক পরিস্থিতিতে পড়তে হলো? তিনি কি আসলেই বিয়ে করেছেন? রিসোর্টের রেজিস্টারেও নাকি তিনি প্রথম স্ত্রীর নাম লিখেছেন, যাকে নিয়ে গেছেন তার নাম লেখেননি।

হ্যাঁ, ‘ফাঁন্দে’ পড়ে তার দাবি তিনি তার একদা ঘনিষ্ঠ বন্ধুর স্ত্রীকে বিয়ে করেছেন। ইসলাম ধর্মে জিনা করা অর্থাৎ পরনারী বা পুরুষের সাথে যৌন সম্পর্ক স্থাপন (বিয়ে ছাড়া) পাপ।

মামুনুলদেরই সতীর্থ মিজানুর রহমান আজহারীই একটি ওয়াজে বলেছেন, কেউ যদি সমাজকে না জানিয়ে গোপনে বিয়ে করে সেটাও জিনার পর্যায়ে পড়ে। সেই সূত্রে মামুনুলের ‘নৈতিক স্খলন’ ঘটেছে। সুতরাং নৈতিক স্খলন ঘটিয়ে ধর্ম কর্ম নিয়ে জাতিকে জ্ঞান দেওয়ার নৈতিক অধিকার কতটুকু মামুনুলের আছে, তা দেশের বিজ্ঞ আলেমদের বিচার করা উচিৎ।

রিসোর্টে যাওয়া পাপের কিছু নয়। বউ, পরিবার, বন্ধু-বান্ধব নিয়ে যে কেউ যেতে পারে। অবসর সময়ে অনেকেই তাই করেন। হেফাজতের অনেকেই বলছেন, দেশে গত কিছুদিন ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপ করতে গিয়ে তাদের অনেক নেতা-কর্মী নিহত-আহত হয়েছে।

কেউ যদি সমাজকে না জানিয়ে গোপনে বিয়ে করে সেটাও জিনার পর্যায়ে পড়ে। সেই সূত্রে মামুনুলের ‘নৈতিক স্খলন’ ঘটেছে।

হেফাজতের শীর্ষ নেতা মামুনুল বন্ধুর বউকে নিয়ে অবকাশ যাপনে রিসোর্টে গেছেন। হেফাজতিরা, আপনারাই একবার তাকে জিজ্ঞেস করেন তো, তিনি এর আগে আহত-নিহত কোনো কর্মীর বাড়িতে সমবেদনা জানাতে গিয়েছেন কি-না ? তাদের পাশে গিয়ে দাঁড়িয়েছেন কি-না?

গতকাল মামুনুল ফেসবুকে একটি মানবিক (!) বিয়ের গল্প লিখেছেন। তিনি নাকি তার বন্ধুর স্ত্রীকে বিয়ে করে পূণ্যের কাজ করেছেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে আরেক গ্ৰুপ বলছে, মামুনুলের কারণেই নাকি তার বন্ধুর সংসার ভেঙেছে। যাক, সে বিতর্কে না যাই। কিন্তু ধরা পড়ার পর পর মামুনুল তার স্ত্রীকে বলেছেন যে, বন্ধু জাফর শহিদুলের স্ত্রীকে নিয়ে তিনি রিসোর্টে গিয়েছিলেন।

ইসলামে চারটা বিয়ে করা জায়েজ। কিন্তু দ্বিতীয় বিয়ে করতে গেলে যে প্রথম স্ত্রীর অনুমতি লাগে সেটা আপনি জানতেন না মাওলানা সাহেব? নাকি ধর্মকে বাপ-দাদার পৈতৃক সম্পত্তি বানিয়ে নিজেদের সুবিধা মতো ব্যাখ্যা বানিয়ে নিচ্ছেন।

যদি সবাইকে জানিয়েই তিনি বিয়ে করেন তাহলে তার স্ত্রীর কাছে তিনি বন্ধুর স্ত্রী বললেন কেন? কেন মামুনুলের বড় বোন ফোন করে মামুনুলের স্ত্রীকে বললেন বিয়ের বিষয়টি স্বীকার করে যাওয়ার জন্য।

মাওলানা সাহেব আপনিতো নাকি শায়খুল হাদিস! আপনি এমন একজন শায়খুল হাদিস, শুধু জানেন ইসলামে চারটা বিয়ে করা জায়েজ। কিন্তু দ্বিতীয় বিয়ে করতে গেলে যে প্রথম স্ত্রীর অনুমতি লাগে সেটা আপনি জানতেন না মাওলানা সাহেব? নাকি ধর্মকে বাপ-দাদার পৈতৃক সম্পত্তি বানিয়ে নিজেদের সুবিধা মতো ব্যাখ্যা বানিয়ে নিচ্ছেন।

হেফাজতের সম্মান রক্ষার্থে আপনার পক্ষে অনেকেই হয়তো বক্তৃতা-বিবৃতি দিবেন। হয়তো তাদেরও এইরকম লাইলী-মজনু মার্কা কাহিনি থাকতে পারে। তখন আপনি তাদের পক্ষে বড় গলায় কথা বলবেন। সমাজের সাধারণ মানুষ যদি এইসব করে তা সমাজকে খুব একটা আলোড়িত করে না। আপনাদের মতো আলেম ওলামারা যখন এইসব অপকর্মে লিপ্ত হন এবং নৈতিক স্খলন ঘটান তা কিন্তু সমাজকে ভাবিয়ে তোলে।

একজন নীতি নৈতিকতাহীন মানুষ সমাজকে ধর্মের কী বাণী শেখাবে? লাখ লাখ টাকা খরচ করে নিয়ে গিয়ে ধর্মের কী বয়ান মানুষ আপনাদের কাছ থেকে শুনবে? নৈতিক স্খলনের অধিকারী একজনের পেছনে কি নামাজ পড়া জায়েজ? এই বিষয়ে ইসলাম কী বলে?

আশরাফুল আলম খোকন ।। প্রধানমন্ত্রীর সাবেক উপ-প্রেস সচিব

Link copied