বিএনপির সমাবেশ : প্রস্তুত নেতাকর্মী, তৈরি হচ্ছে মঞ্চ

Dhaka Post Desk

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:০৩ পিএম


বিএনপির সমাবেশ : প্রস্তুত নেতাকর্মী, তৈরি হচ্ছে মঞ্চ

ডিএমপির জুড়ে দেওয়া ২৬ শর্ত মেনে রাজধানীর গোলাপবাগ মাঠে সমাবেশ করতে যাচ্ছে বিএনপি। শেষ মুহূর্তে সমাবেশের অনুমতি মিললেও উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছেন দেশের বিভিন্ন জেলা ও ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা। 

এদিকে সমাবেশ ঘিরে সব ধরনের প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে। এরই অংশ হিসেবে সমাবেশের মঞ্চও প্রস্তুত করছেন নেতাকর্মীরা। 

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার পর গোলাপবাগ মাঠে বিএনপি নেতাকর্মীরা মঞ্চ প্রস্তুত করতে শুরু করেন৷ 

সরেজমিন দেখা গেছে, সমাবেশের অনুমতি পাওয়ার পর থেকেই বিএনপি নেতাকর্মীরা এ মাঠে আসতে শুরু করেন। এমনকি সন্ধ্যা গড়িয়ে রাত নামতেই কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে উঠে রাজধানীর এই মাঠটি।

দেশের বিভিন্ন জেলা শহর থেকে সমাবেশে আসা একাধিক নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সমাবেশে যোগ দিতে কয়েকদিন আগে থেকেই ঢাকায় প্রবেশ করেন তারা। নানা চড়াই উতরাই পার করার পরেও সমাবেশস্থল নির্ধারিত হওয়াতে উচ্ছ্বসিত তারা।  

এর আগে শুক্রবার দুপুরে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা কমলাপুর স্টেডিয়াম চেয়েছিলাম, কিন্তু সেখানে খেলা চলায় সম্ভব না। পুলিশের কাছে তারপর আমরা গোলাপবাগ মাঠের কথা বলেছিলাম, পুলিশ লিখিতভাবে অনুমতির জন্য আবেদন করতে বলেছিল, আমরা লিখিত আবেদন করেছি। তারা অনুমতি দিয়েছে। 

তিনি বলেন, আগামীকাল গোলাপবাগে আমাদের সমাবেশ হবে। পুলিশ সব ধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে বলে আশ্বস্ত করেছে। 

এ বিষয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশ প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার হারুন অর রশীদ জানান, বিএনপির প্রস্তাবিত দাবির পরিপ্রেক্ষিতে তাদের গোলাপবাগ মাঠে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

এরপর সন্ধ্যায় ২৬টি শর্তসাপেক্ষে বিএনপিকে গোলাপবাগ মাঠে গণসমাবেশ করার অনুমতি দেয় ডিএমপি। 

মূলত ১০ ডিসেম্বর সমাবেশের জন্য বিএনপি শুরু থেকেই নয়াপল্টনের সড়ক ব্যবহারের দাবি জানিয়ে আসছিল। আর সরকার শুরু থেকেই বলে আসছিল নয়াপল্টনে সমাবেশ করতে দেওয়া হবে না। বিএনপিকে সমাবেশ করতে হবে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে।

তবে সোহরাওয়ার্দীর বিষয়ে শুরু থেকেই আপত্তি জানিয়ে আসছিল বিএনপি। তারা আরামবাগ ও সেন্ট্রাল গভর্নমেন্ট স্কুলের মাঠের প্রস্তাব দিলেও পুলিশ তাতে রাজি হয়নি।

এমএম/এসকেডি

টাইমলাইন

Link copied