নামাজে ভিন্ন চিন্তা এলে কী করবেন?

Shaykh Mahmudul Hasan

৩১ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫৭ পিএম


নামাজে ভিন্ন চিন্তা এলে কী করবেন?

ছবি : সংগৃহীত

অনেকে প্রশ্ন করেন যে, নামাজে দাঁড়ালে নানা ধরনের চিন্তা আসে। বিভিন্ন রকম কল্পনা মাথায় ঘুরপাক খায়। এতে করে নামাজের কোনো ধরনের অসুবিধা হবে কিনা? নামাজ কি শুদ্ধ হবে?

এর উত্তর হলো- নামাজ আল্লাহ তাআলার মহান ইবাদত। নামাজ সম্পর্কে আল্লাহ পাক বলেছেন, ‘ওই ঈমানদাররা-ই সফল, তারাই  যারা মনোযোগ সহকারে নামাজ আদায় করেন।’ (সুরা ‍মুমিনুন, আয়াত : ০১-০২)

আল্লাহ শুধু বলেননি যে, নামাজ আদায় করো। বরং আল্লাহ বলেছেন, সফলতার জন্য ওই নামাজ দরকার— যে নামাজে প্রাণ আছে, যেই নামাজের মধ্যে নিমগ্নতা আছে। এমন নামাজকে আরবিতে খুশু বলা হয়। বিনয়ের সাথে ও বিনম্রতার সাথে আল্লাহমুখী হয়ে কন্সেন্ট্রেশন অ্যান্ড ডিভোশন— এটার মাধ্যমে নামাজ আদায় করলে, তারাই সফল হবে।

কাজেই আমরা ওভাবে নামাজ আদায় করার জন্য চেষ্টা করব। একান্তই যদি চিন্তা ফিকির মনে এসে যায়, তাহলে তাকে সঠিক জায়গায় নিয়ে যেতে হবে। যদি আবার চলে যায়, আবার ফিরিয়ে আনতে হবে। আবার চলে গেলে, ফের ফিরিয়ে আনতে হবে। এভাবে মনের উপর একটা নিয়ন্ত্রণ অর্জন করতে হবে।

তবে লক্ষণীয় যে, কেউ যদি নামাজে এত বেশি বাইরের কোনো বিষয়ে চিন্তা করছে। সে যে নামাজে আছে, সে কথাও ভুলে যায়। তখন কিন্তু নামাজ হবে না। তবে কারও যদি আইডিয়া আছে যে, সে নামাজে আছে। এটা ঠিক রেখে এদিক-ওদিক চিন্তা করে— তাহলে নামাজ হবে। তবে তাড়াতাড়ি মনকে ফিরিয়ে আনতে হবে। কিন্তু যদি এমনভাবে চিন্তায় নিমগ্ন হয়ে পড়ে, সে নামাজে আছে; সে কথাও ভুলে যায়, তাহলে তার নামাজ আদায় হবে না। তাকে আবার নামাজ আদায় করতে হবে।

(সূত্র : সুরা মুমিনুন, আয়াত ১-২)

Link copied